No icon

ভ্যাকসিন ছাড়াই চলে যেতে পারে করোনা

যোদ্ধা ডেস্কঃ করোনা মহামারী বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে, লাখ লাখ মানুষকে সংক্রমিত করেছে এবং কয়েক লাখ মানুষের মৃত্যু ঘটিয়েছে। ফলস্বরূপ, একটি কার্যকর ভ্যাকসিন তৈরির লক্ষ্যে বিশ্বজুড়ে গবেষকরা মরিয়া প্রচেষ্টা রয়েছেন। তবে, করোনাভাইরাস সময়ের সাথে সাথে দুর্বল হয়ে পড়েছে এবং এটি কোনও টিকার প্রয়োজন ছাড়াই মারা যেতে পারে। এমনটাই দাবি করেছেন শীর্ষস্থানীয় এক ইতালিয়ান সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ। দেশটির পলিক্লিনিকো সান মার্তিনো হাসপাতালের সংক্রামক রোগ ক্লিনিকের প্রধান অধ্যাপক মাত্তিও বাসেতির মতে, সাম্প্রতিক মাসগুলিতে ভাইরাসের মধ্যে পরিবর্তন ঘটেছে। তাই এক পর্যায়ে প্রতিষেধক অত্যাবশ্যকীয় নাও হতে পারে।

বাসেতি দ্য টেলিগ্রাফকে বলেছেন, ‘আমার যে ক্লিনিকাল ধারণা রয়েছে তা হ›ল, ভাইরাস তীব্রতার সাথে পরিবর্তিত হচ্ছে। মার্চ এবং এপ্রিলের শুরুতে এর নমুনাগুলি সম্পূর্ণ আলাদা ছিল। মানুষ নিয়ন্ত্রণের বাইরে অসুুস্থতা নিয়ে জরুরি বিভাগে আসছিল এবং তাদের অক্সিজেন এবং কৃত্রিম শ্বাসপ্রশ্বাস প্রয়োজন হতো। অনেকের নিউমোনিয়া হয়ে গিয়েছিল।’ তিনি জানান যে, গত ৪ সপ্তাহে, অসুস্থতার ধরণ সম্পূর্ণভাবে পরিবর্তিত হয়েছে। শ্বাসযন্ত্রের মধ্যে কম মাত্রায় ভাইরাস মিলছে। সম্ভবত ভাইরাসটির জিনগত পরিবর্তনের কারণে, যা এখনও বৈজ্ঞানিকভাবে প্রকাশ করা হয়নি। এছাড়াও, মানুষ এখন রোগ সম্পর্কে আরও সচেতন এবং এটির সাথে মানিয়ে নিতে সক্ষম।

ইদানিং এমনকি ৮০ বা ৯০ বছর বয়সী রোগীরাও বিছানায় বসে থাকতে পারছেন এবং যন্ত্রের সাহায্য ছাড়াই শ্বাস নিচ্ছেন। মাত্র কিছুদিন আগেও একই ধরণের রোগীদের মৃত্যু ঘটতো। বাসেতি মনে করেন, ভাইরাসটি পরিবর্তিত হয়েছে কারণ মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ভাইরাসের বিরুদ্ধে প্রতিক্রিয়া ঘটাচ্ছে এবং লকডাউন, মাস্ক ব্যবহার করার পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি এবং সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার কারণেও এখন ভাইরাস সংক্রমণ বহুলাংশে কম। বাসেতি আরো বলেন, ‘হ্যাঁ, সম্ভবত এটি কোনও টিকা ছাড়াই পুরোপুরি দূর হয়ে যেতে পারে। আশঙ্কার তুলনায় কম সংখ্যক লোক সংক্রমিত হয়েছে এবং ভাইরাসটি মারা যাওয়ার সাথে এসবের ইতি ঘটতে পারে।’

তবে, এটাই প্রথমবার নয় যে, কোনও স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ অনুমান করেছেন ভাইরাসটি দুর্বল হচ্ছে। এর আগে, গত মে’তে ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ এবং যুক্তরাজ্যের রাদারফোর্ড হেলথের প্রধান চিকিৎসাবিদ অধ্যাপক ক্যারল সিকোরাও টেলিগ্রাফকে বলেছিলেন যে, মহামারীটি নিজ থেকেই বিদায় হয়ে যেতে পারে।

Comment