No icon

সময়ই বলে দেবে সিদ্ধান্তটা সঠিক ছিল কি-না: গয়েশ্বর

যোদ্ধা ডেস্কঃ  বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর রোববার বলেছিলেন, দলীয় এমপিদের সংসদে পাঠিয়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। ২৪ ঘণ্টা না পেরোতেই মির্জা ফখরুলকে উদ্দেশ করে উল্টো মন্তব্য ছুড়ে দিলেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। 

তিনি বলেছেন, সময়ই বলবে সংসদ যাওয়ার সিদ্ধান্ত সঠিক ছিল কি-না।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সোমবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে 'নাগরিক অধিকার আন্দোলন ফোরাম' নামের একটি সংগঠনের প্রতিবাদ সভায় এ মন্তব্য করেন গয়েশ্বর রায়। গত শনিবারও জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক অনুষ্ঠানে মির্জা ফখরুলকে একহাত নিয়েছিলেন তিনি। প্রশ্ন তুলেছিলেন, দলীয় সিদ্ধান্তে পাঁচ এমপি সংসদে গেলেও মির্জা ফখরুল কেন শপথ নেননি। মন্তব্য করেছিলেন, 'কারও একা ভালো থাকার বা হিরো সাজার সুযোগ নেই।'

'সংসদে যোগ না দেওয়ার আগের সিদ্ধান্ত সঠিক ছিল না। সংসদে যেতে তারেক রহমানের সিদ্ধান্তই সঠিক'- মির্জা ফখরুলের এ বক্তব্যের একদিন বাদেই  গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, সংসদে শপথ নেওয়া ও যাওয়ার কার্যক্রম শেষ। তাই এ নিয়ে গল্প করার অর্থ নেই; যুক্তিও নেই। নানারকম দৃষ্টিভঙ্গি থাকবে। মতভেদ থাকবে। দৃষ্টিভঙ্গির ভিন্নতা থাকবে। তবে সময়ই বলে দেবে, সিদ্ধান্তটা সঠিক ছিল কি-না। এজন্য অপেক্ষা করতে হবে।

সংসদে যেতে দলের সিদ্ধান্ত প্রসঙ্গে গয়েশ্বর বলেন, সিদ্ধান্তহীনতার চেয়ে ভুল সিদ্ধান্ত অনেক ভালো। ভালো-মন্দ যে কোনো সিদ্ধান্ত দলকে নিতে হবে। রাজনীতি, ব্যক্তিগত এবং সাংসারিক জীবনেও প্রতিমুহূর্তে সিদ্ধান্ত সংশোধন, পরিবর্তন হয়। এই পরিবর্তনের পেছনে কোনো না কোনো যৌক্তিক কারণ থাকে। এ নিয়ে বিএনপিতে তর্ক-বিতর্ক নেই। 

সাবেক এই প্রতিমন্ত্রী বলেন, দলের সিদ্ধান্ত নিয়ে তারা পথ চলবেন। এটাই তাদের মূল উদ্দেশ্য।

খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করে তিনি বলেন, কেউ কেউ আশা করেছিলেন, সংসদে যাওয়ার সঙ্গে বিএনপি চেয়ারপারসনের মুক্তি জড়িত। কিন্তু আইনের স্বাভাবিক দৃষ্টিতে খালেদা জিয়ার মুক্তি আদালত ও আইনের ওপর নির্ভরশীল। কোনো ব্যক্তি বা প্রধানমন্ত্রীর ওপর নির্ভরশীল নয়।

সভায় আরও বক্তব্য দেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, কেন্দ্রীয় নেতা ইসমাইল হোসেন বেঙ্গল, নাজিমউদ্দিন মাস্টার, আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ প্রমুখ। সভাপতিত্ব করেন নাগরিক অধিকার আন্দোলনের উপদেষ্টা সাঈদ আহমেদ আসলাম।

Comment